আমীর খানের দ্বিতীয় বিবাহ বিচ্ছেদ ও তার কারণ

বিনোদন ডেস্কঃ আমীর খান ও তার স্ত্রী কিরণ রাউের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটছে । তারা প্রায় ১৫ বছর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ ছিলেন । তাদের প্রথম দেখা হয় ২০০১ সালে আমীর খানের বিখ্যাত সিনেমা ‘ লাগান ‘ এর শুটিং এর সময় । লাগান সিনেমায় কিরণ অ্যাসিস্ট্যান্ট ডাইরেক্তর ছিলেন সেখান থেকে মনের মিল ও ২০০৫ সালে বিয়ে। ২০১১ সালে তাদের একটি ফুটফুটে ছেলে সন্তানও হয় । বেশ সুখেই কাটছিল তাদের জীবন তবে এবার বুঝি ফাটল ধরল তাদের সংসারে ।

আমীর ও কিরণের যৌথ ভাবে বলেন ,১৫ বছর খুব সুন্দর সময় কাটিয়েছি আমরা তবে এখন একটি নতুন যাত্রা শুরু করতে চাই আমরা তবে সেটা স্বামী – স্ত্রী হিসাবে নয় সন্তানের অভিভাবক হিসাবে। তারা আরও জানায়, এই সিদ্ধান্ত তারা অনেক আগে নিলেও আইনি সিদ্ধান্ত ও আলাদা থাকার সিদ্ধান্ত নিতে তাদের সময় লেগেছে। তবে বৈবাহিক সম্পর্ক ছিন্ন হলেও তাদের প্রফেশনাল জীবন আলাদা হবে না ,কলা–কউশলি দের কাছে তারা অনুরধ করে যেন তাদের ডিভোর্সকে শেষ হিসাবে না দেখে নতুন শুরু হিসাবে গণ্য করতে।

তো প্রশ্ন হচ্ছে কারণ টা কি । সুত্র মতে আমিরের একসময়ের কো-স্টার ফাতিমা সানা শেখ কে অনেকেই দায়ি করছেন আমীরের বিবাহ বিচ্ছেদের কারণ হিসাবে । এখন না প্রায় ২ বছর আগেও আমীর ও ফাতিমার সম্পর্কের বিষয়ে গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল । তারা একসাথে ২ টি সিনেমা করেছেন ‘দাঙ্গাল ‘ ও ‘থাগস অফ হিন্দুস্তান’ । ‘দাঙ্গাল’ তাদের একসাথে প্রথম সিনেমো ছিল দ্বিতীয় সিনামাটি ফাতিমা আমীরের রেকমেনডেসোনে পায় । এছাড়াও তাদের একসাথে বিভিন্ন পার্টি ও মুভি থিয়েটারেও একসাথে দেখা গিয়েছে । আমীর এই বিষয়ে কিছু না বললেও মুখ খুলে ফাতিমা তিনি বলেন প্রথমত এই খবর শুনে তিনি খুব অবাক আর তিনি আমিরকে শুধুই নিজের মেন্টর মনে করেন ।

তবে এটিই প্রথম বিয়ে ছিল না আমীর এর আগেও তার আরেকটি বিয়ে করেছিলেন। ১৯৯৮ সালে আমীর ও রিনা দত্ত বিয়ে করেন যে সম্পর্কে তাদের একটি ছেলে ও মেয়ে আছে ২০০২ সালে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটলে তার স্ত্রী রিনাই ২ বাচ্চার কাসটাডি পেয়ে যায় ।

আরও পরুনঃ টাঙ্গাইলে করোনার আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ১১ জনের মৃত্যু নতুন করে আক্রান্ত ১৯৫

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন