তুরস্কে আফগান শান্তি সম্মেলনে অংশ নিতে বন্দীদের মুক্তির আহ্বান তালেবানদের

স্বতঃকণ্ঠ আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ তুরস্কে আয়োজিত আফগান শান্তি সম্মেলনে যোগ দেওয়ার জন্য তালেবান বন্দীদের মুক্তি এবং জাতিসংঘের কালো তালিকা থেকে তালেবান নেতাদের নাম বাদ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে তালেবানরা।

তালেবানের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, তালেবানরা জোর দিয়ে বলেছে, তুরস্কের সম্মেলনে যোগদানের আগে দুটি দাবি বাস্তবায়ন করতে হবে। জাতিসংঘের কালো তালিকা থেকে তালেবান নেতাদের নাম বাদ এবং বন্দী তালেবানদের মুক্তি দিতে হবে।

মঙ্গলবার ২১ এপ্রিল সন্ধ্যায় তালেবানেরা ৭ হাজার বন্দী ও নেতাদের নামের একটি তালিকা পাঠায়।

পাকিস্তানের জন্য প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির বিশেষ প্রতিনিধি মোহাম্মদ ওমর দাউদজাই বলেন, যুদ্ধবিরতি মেনে ৭ হাজার তালেবান বন্দীদের মুক্তির শর্ত দেওয়া ভাল হবে। যদি তারা যুদ্ধবিরতি মেনে নেয় এবং বন্দীদের মুক্তি দেওয়া হয়, তাহলে তাদের যুদ্ধে যাওয়ার আর প্রয়োজন নেই।”

রয়টারস তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর বরাত দিয়ে জানায়, তালেবানরা তুরস্কের সম্মেলনে উপস্থিত থাকতে অস্বীকার করার কারণে সম্মেলনটি ঈদ-উল-ফিতর পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।

তুরস্ক, জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র এবং কাতার বেশ কয়েকদিন ধরে তালেবানদের ইস্তানবুল শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে রাজি করানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু মঙ্গলবার ২১ এপ্রিল রাতে এক সমন্বিত সিদ্ধান্তে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঘোষণা দেন যে ঈদ-উল-ফিতর পর্যন্ত সম্মেলনটি স্থগিত করা হয়েছে।

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু তার টুইটবার্তায় বলেন, “আফগানিস্তান সম্পর্কে আমরা কাতার, যুক্তরাষ্ট্র এবং জাতিসংঘের সাথে ভোট দিয়েছি। “আমরা রমজানের পর আফগান শান্তি নিয়ে ইস্তানবুল শীর্ষ সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

পাকিস্তান বেশ কয়েকদিন ধরে তালেবানদের শান্তি আলোচনায় ফিরে আসতে বাধ্য করার পাশাপাশি ইস্তানবুল শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেওয়ার প্রচেষ্টা করছিল। এবং সে প্রচেষ্টা কাজ করবে বলে আশা করা হচ্ছিল।

দাউদজাই বলেন, “আগামীকাল কাবুলে একটি উচ্চ পর্যায়ের বেসামরিক ও সামরিক প্রতিনিধিদল আসবে যেখানে আমরা গভীর আলোচনা করব যা আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নতিতে সহায়তা করবে।”

তালেবানরা ইস্তানবুল শীর্ষ সম্মেলনে আলোচনা পুনরায় শুরু এবং অংশগ্রহণের বিষয়ে ভোট দিচ্ছে, যেখানে আফগানরা সহিংসতা এবং শান্তি প্রক্রিয়ায় সুযোগ হারানোর বিষয়ে উদ্বিগ্ন।

হাই পিস কাউন্সিলের সাবেক উপপ্রধান কাজী মোহাম্মদ আমিন ওয়াকাদ বলেন, “আমি তালেবানদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি যে যুদ্ধের ফলে দেশটি ধ্বংস হয়ে গেছে, আসুন আমরা আলোচনায় ফিরে যাই এবং একমত হই।”

তালেবানের ঘনিষ্ঠ সূত্রটি বলেছে যে, তালেবানদের ইস্তানবুল শীর্ষ সম্মেলনে যোগ না দেওয়ার আরেকটি শর্ত হল আফগানিস্তান থেকে বিদেশী সৈন্যদের সম্পূর্ণ অনুপস্থিতি।

সূত্রঃ টলো নিউজ

আরও পড়ুনঃ তালেবানদের বিশ্বাস করা যায় না -যুক্তরাষ্ট্র

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন