নারিকেল তেলের যত গুনাগুন….

স্টাফ রিপোর্টারঃ নারিকেল তেল এমন একটি উপাদান যা সকলের ঘরেই কমবেশি থাকে। এবং সকলেই তা ব্যবহার করে থাকেন। নারিকেল তেলের অনেক উপকার রয়েছে। নারিকেল তেল ২ ভাবে ব্যবহার করা যায়। এটি খাওয়াও যায় আবার ত্বকে লাগানোও যায়।

নারিকেল তেলে এমসিটি তথা মিডিয়াম চেইন ফ্যাটি এসিড থাকে যেটি স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশি ভালো। নারিকেল তেল খেলে তা সরাসরি আপনার লিভার এ গিয়ে পৌঁছায়। এবং এটি আপনার দেহে কার্বোহাইড্রেট এর অভাব মেটাতে সাহায্য করে যাতে আপনার ওজনও কমতে থাকে।

নারিকেল তেল অবশ্যই পরিমাণমতো খাওয়া উচিত। দিনে ১ চামচের বেশি নারিকেল তেল খাওয়া উচিত নয়। শাকসবজি অথবা জুসের সাথে মিশিয়েও নারিকেল তেল খাওয়া যায়। যাতে খেতে কোন প্রকার সমস্যা না হয়।

ওয়েট লস ডায়েট এর ক্ষেত্রে নারিকেল তেল অনেক বেশি উপকারী কেননা এটি অতি দ্রুত ওজন কমাতে সাহায্য করে। তবে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যাদের লিভারের প্রবলেম বা লিভার ডিজিজ রয়েছে তারা নারিকেল তেল খেতে পারবে না। কারণ তাদের বেশি তেল খাওয়া মোটেও উচিত নয়।

নারিকেল তেল ত্বকের জন্য অত্যান্ত ভালো। বিশেষভাবে যাদের ত্বক শুষ্ক অথবা যাদের রোদে পোড়া কালো দাগ রয়েছে বা যাদের স্কিনে এলার্জি রয়েছে তাদের জন্য নারিকেল তেল অত্যাবশ্যক ।

কারণ নারিকেল তেল ঠান্ডা জাতীয় পদার্থ এবং এটি আপনার ত্বকে লাগানোর মাধ্যমে আপনার ত্বককে করে দেয় মসৃণ এবং তার সাথে সাথে আপনার ত্বকের যতরকম এলার্জির প্রবলেম হোক আর শুষ্কতার সমস্যা হোক বা রোদের কালো পোড়া দাগ হোক সবকিছু থেকে রক্ষা করে।

যাদের শুষ্ক স্কিন তারা যদি রাতে ঘুমনোর আগে নারিকেল তেলের সাথে সামান্য পরিমাণে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে মুখে ভালোমতো মেসেজ করে, তবে তাদের স্কিন থেকে শুষ্কতা একদম চলে যাবে।

যাদের ফাংগাল ইনফেকশন আছে তাদের জন্য নারিকেল তেল অতি গুরুত্বপূর্ণ। যাদের ফাংগাল ইনফেকশন রয়েছে তারা যদি খাটি নারিকেল তেল ব্যবহার করে তাহলে তাদের ইনফেকশন অতি দ্রুত সেরে যাবে।

কারণ নারিকেল তেলে রয়েছে অতি শক্তিশালী কিছু এন্টিফাঙ্গাল উপাদান। এমনকি নারিকেল তেল ব্যবহারের মাধ্যমে স্ক্যাল্প ইনফেকশন তথা মাথার চুলের গোড়ার ইনফেকশনও অতি দ্রুত সেরে যায়। এবং আপনার চুল হয়ে ওঠে ফাঙ্গাস মুক্ত, স্বাস্থ্যসম্মত এবং সুন্দর।

নারিকেল তেল মালিশের ক্ষেত্রেও অনেক ভালো। বাচ্চা থেকে বুড়োদের পর্যন্ত নারিকেল তেল দিয়ে মালিশ করা স্বাস্থ্যসম্মত ধরা হয়। নারিকেল তেল অনেক ঠান্ডা হয় যার কারণে আমরা এটিকে গরমের দিনে তথা গ্রীষ্মকালেও ব্যবহার করতে পারি।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন