নোয়াখালীর চাটখিলে ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে অন্তঃসত্ত্বা নারীর লাশ উত্তোলন

চাটখিল (নোয়াখলী) প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর চাটখিলের বহুল আলোচিত লাবনি আকতার (২০) এর মৃত্যুর পাঁচ দিন পর কবর থেকে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।

সোমবার ২০ জুলাই দুপুরে নোয়াখালী জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুল ইসলাম রনির উপস্থিতেময়নাতদন্তের জন্য নিজ বাড়ির পারিবারিক কবরস্থান থেকে লাবনি আকতারের লাশ উত্তোলন করা হয়।

এই আলোচিত ঘটনাটি ঘটেছে নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলা নোয়াখলা গ্রামে।

মৃত লাবনী আকতার নোয়াখলা গ্রামের বড়বাড়ির মেয়ে এবং স্বামী ফয়সাল একই গ্রামের চমর উদ্দিন মুন্সির বাড়ির ছেলে।

মাত্র দুই বছরের সংসার লাবনী ও ফয়সালের। নোয়াখালী সদর উপজেলায় স্বামীর সাথে বসবাস করতেন লাবনী।

গত বুধবার ১৪ জুলাই রাতে নিজ গৃহে লাবনীর লাশ উদ্ধার করে সদর থানা পুলিশ।

পরে মৃত লাবনি আক্তারের নিজ বাড়িতে বৃহস্পতিবার ১৫ জুলাই চাটখিল থানা পুলিশের সহযোগিতায় লাশ দাফন করা হয়।

দাফনের সময় লাবনীর পরিবারের পক্ষ থেকে কোন প্রকার আপত্তি না থাকায়, ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করা হয়েছিল।

পরে এলাকাবাসী সামাজিক যোগাযোগ ফেইসবুকে এই মৃত্যু স্বাভাবিক নয় বলে প্রতিবাদে সোচ্চার হন।

তারই পরিপেক্ষিতে আজ লাবনি আক্তারের লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

৮ নং নোয়াখলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইব্রাহিম খলিল সোহাগ বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে যদি অস্বাভাবিক মৃত্যু প্রমাণিত হয় তাহলে দোষিদের আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

চাটখিল থানা খিলপাড়া পুলিশ ফাড়ির এস আই ইকবাল এর নেতৃত্বে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়।

আরও পড়ুনঃ নোয়াখালী চাটখিলে ভুয়া এমবিবিএস চিকিৎসক আটক ২ বছরের কারাদণ্ড

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন