নোয়াখালীর হাতিয়ায় ঘরের সামনে থেকে তুলে নিয়ে গৃহবধূকে গণধর্ষণ গ্রেপ্তার ৩

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় এক গৃহবধূকে (২০) বসত ঘরের সামনে থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (৩ মার্চ) দুপুরের দিকে আটক ৩ আসামীকে বিচারক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে বলে জানান পুলিশ।

এর আগে, (২৭ ফেব্রুয়ারী) রাত পৌনে ১২ টার দিকে উপজেলার তমরুদ্দী ইউনিয়নের ক্ষিরোদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর করা মামলায় তিন জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, এজাহারভুক্ত আসামী ফজর আলী প্রকাশ হেলাল (২৫), মো.মিরাজ (২৮), মো. নেজাম (৫০)।

ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮ টার দিকে প্রতিদিনের ন্যায় খাওয়া দাওয়া শেষে গৃহবধূ (২০) তাহার স্বামীসহ তাহার ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত অনুমানিক পৌনে ১২ টার দিকে তাহার স্বামী ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেয়ায় গৃহবধূ ঘরের বাহিরে গেলে কিছু বুঝে উঠার আগেই ফজর আলী প্রকাশ হেলাল (২৫) তাহার মুখ চেপে ধরে ভিকটিমের বাড়ির পশ্চিম পার্শ্বে সাহাব উদ্দিন প্রকাশ কালুর বাড়ির পুকুর পাড়ে নিয়ে একই এলাকার আব্দুর রহীমের ছেলে মো. মিরাজ (২৮), মৃত মোয়াজ্জম হোসেনের ছেলে ফজর আলী প্রকাশ হেলাল (২৫), মৃত খোরশেদ আলমের ছেলে মো. নেজাম (৫০) গৃহবধূকে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

পরে এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নিজেই বাদী হয়ে মঙ্গলবার (২ মার্চ) ৩ জনকে আসামী করে হাতিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

হাতিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কাঞ্চন কান্তি দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মামলার আলোকে আসামীদের আটক করেছে পুলিশ।

আটক আসামীদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে বিচারক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন