পাবনার চাটমোহরে মলম পার্টির খপ্পরে অটো হারানো মাসুদকে উদ্ধার

পাবনা প্রতিনিধি: গত ১৫ই জুলাই মলম পার্টির খপ্পরে অটো হারানো মাসুদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে তার পরিবারে খবর দিয়ে চরম মানবতার উদাহরণ হলেন ফরিদপুরের যুবলীগ নেতা হাফিজ সরকার।

দেশের চলমান করোনাকালীন পরিস্থিতিতে যখন মানুষ তার নিকট আত্মীয় স্বজন বিপদে পরলেও কেউ উদ্ধার করতে অনিহা প্রকাশ করেছে তখন দোকাদারের ফোন পেয়ে প্রচন্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে অসুস্থ অটো চালক মাসুদ রানা (১৮) কে উদ্ধার করে গোপালনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান এই যুবলীগ নেতা।

দরিদ্র পরিবারের সন্তান এই মাসুদ রানা পাবনার চাটমোহর উপজেলার মল্লিক বাইন গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে। সে পাবনায় উচ্চমাধ্যমিকে পড়াশোনা করতো।

করোনাকালীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারনে বাবার অটো নিয়ে ভাড়া খাটার উদ্দেশ্য সকাল সাতটার দিকে বাড়ি থেকে বেড় হয়।

তার বাবার বর্ননা অনুযায়ী চাটমোহর উপজেলার বনগ্রাম থেকে একজন ভারা করে মাসুদের অটোরিক্সা এর পরে হাটগ্রামে নেমে কিছু খাওয়ানোর পর আস্তে আস্তে অসুস্থ হতে থাকে।

তখন তার কাছ থেকে অটো করে নিয়ে কে বা কারা তাকে মটর সাইকেলে করে মাসুদকে ফরিদপুর পৌর ভূমি অফিসের সামনে ফেলে রেখে চলে যায়।

আধভাঙ্গা গলায় মাসুদ তার বাবার কাছে কথাগুল বলে বলে জানায় মাসুদের বাবা আব্দুস সালাম। মাসুদকে ভয়ে কেউ সাহায্য করছিল না।

তখন ব্যবসায়ী আতিক ফোন করে হাফিজ সরকার কে জানালে প্রচন্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে মাসুদকে উদ্ধার করেন তিনি।

দুর্যোগের কঠিন সময়ে নিজের বিপদ মনে না করে যে মানুষ এমন মহান কাজ করলেন তাকে ফরিদপুরের সুশিল সমাজের অনেকেই ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

এবিষয়ে মলম পার্টির সদস্যদের ধরার জন্য ফরিদপুর থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে মাসুদের পরিবার। এদিকে ঈদ উপলক্ষ্যে মলম পার্টির দৌরাত্ম্য বেশ দেখা যাচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের তৎপরতা বৃদ্ধির অনুরোধ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

আরও পড়ুনঃ পাবনা জেলা ছাত্রলীগের খাবার বিতরণ

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন