পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ঈদগাহ ও মসজিদ প্লাবিত হওয়ায় ব্রিজের উপর ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধিঃ পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার বিলাঞ্চলের অষ্টমণিষা, দিলপাশার ও খানমরিচ ইউনিয়নের সবগুলো গ্রাম বন্যার পানিতে ভাসছে। করোনার কারণে কোনো ঈদগাহেই ঈদের জামাত হয়নি তারপরও এখানে জেগে নেই একটি ঈদগাহ মাঠ। এখানকার পানি বন্দি মানুষ অন্যান্য স্থানের ন্যায় মসজিদেই ঈদের নামাজ আদায় করেন।

ভাঙ্গুড়ার কোনো কোনো গ্রামের মসজিদেও বন্যার পানি প্রবেশ করায় সেখানে ইদের নামাজ আদায় করা যায়নি। এ কারণে অষ্টমণিষা ইউনিয়নের বড় বিশাকোল, বাঁশবাড়িয়া ও দড়ি পাড়া গ্রামের বাসিন্দাদের ঈদের নামাজ পড়তে হয় গ্রামের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত ড্যাঙ্গার বিলের ব্রিজের উপর।

স্থানীয় ইউপি সদস্য নবির উদ্দিন মোল্লা জানান, এ সব গ্রামের মসজিদগুলোতে বন্যার পানি উঠেছে। ঈদের নামাজের জন্য বিকল্প জায়গা খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে তিন গ্রামের মানুষ বিশাকোল-খানমরিচ সড়কের বড় বিশাকোল ব্রিজের উপর ঈদের জামাত আদায়ের সিদ্ধান্ত নেন। গ্রামবাসী, প্রধানবর্গ ও তাদের আত্মীয়স্বজনদের নিয়ে সম্মিলিত ভাবে এখানে আদায় করেন ঈদুল আজহার নামাজ।

খোজ খবর নিয়ে জানাগেছে, বন্যা কবলিত ৩টি ইউনিয়নের প্রায় ৫০টি মসজিদ প্লাবিত হওয়ায় বিকল্প হিসাবে বাঁধ রাস্তা ও ব্রিজের উপর ইদ-উল-আজহার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ পাবনার ভাঙ্গুড়ায় বন্যায় ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুৎ লাইন

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন