পাবনার ভাঙ্গুড়ায় রাস্তা নদীগর্ভে বিলীনের পথে: হুমকির মুখে মন্দিরসহ বসতবাড়ি

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধিঃ পাবনার ভাঙ্গুড়ায় চলাচলের রাস্তা নদীগর্ভে বিলীনের পথে। হুমকির মুখে রয়েছে দূর্গা মন্দিরসহ বেশ কয়েকটি বসতবাড়ি।

সরেজমিনে শুক্রবার পৌর এলাকার ৬ নং ওয়ার্ডের জগাতলা বাজারের ওই রাস্তায় গিয়ে দেখা যায়, জগাতলা থেকে আরাজীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রাস্তার জগাতলা বাজার সংলগ্ন রাস্তাটির প্রায় দেড়শত ফুট রাস্তার গাইড ওয়াল ভেঙ্গে বড়াল নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। রাস্তার নিচের মাটি অনেকাংশই নদীতে ভেঙ্গে গেছে। ফলে রাস্তার ঢালাই অংশের নিচের মাটি সড়ে গিয়ে স্থানে স্থানে নদীর দিকে হেলে গিয়েছে।

ফলে ঝুঁকি নিয়ে টলটলিয়াপাড়া ও জগাতলা মহাশশ্মানে যাতায়াত করছে স্থানীয় বাসিন্দারা। যে কোনো মহুর্তে ঘটতে পারে বড় ধরণের দূর্ঘটনা।

অপরদিকে রাস্তা সংলগ্ন সনাতন ধর্মালম্বীদের একটি সার্বজনীন দূর্গা মন্দির ও কয়েকটি বসতবাড়ি রয়েছে, যা এখন হুমকীর সম্মুখীন।

রাস্তাটি অতিদ্রুত সংস্কার ও রাস্তা রক্ষায় নদীর পাশ দিয়ে টেকসই গাইড ওয়াল তৈরি করলে আগামী বর্ষা মৌসুমে সম্পূর্ণ রাস্তা ও সার্বজীনন দূর্গা মন্দিরসহ কয়েকটি বসতবাড়ি নদী গর্ভে বিলীনের আশঙ্কা রয়েছে।

অথচ এই রাস্তার সাথে আরাজীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সনাতন ধর্মালম্বীদের মহাশশ্মান ও টলটলিয়াপাড়ার শতশত মানুষ যাতায়াতের জন্য এই রাস্তাটি ব্যবহার করে থাকেন।

রাস্তা সংলগ্ন বাসিন্দা ময়না রানী সূত্রধর বলেন, এই রাস্তাটি আগে বড়াল নদীর দিকে বেশ এগিয়ে ছিল। কিন্তু বড়াল নদী ভাঙ্গতে ভাঙ্গতে এখন তাদের বসতবাড়ি ও মন্দির সংলগ্ন রাস্তায় এসে চলে এসেছে। ভারী বর্ষণ হলে রাস্তাসহ তাদের মন্দির ও বসতবাড়ি যে কোনো মুর্হুতে নদী গর্ভে চলে যেতে পারে।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেল বলেন, পৌর এলাকায় বন্যায় ক্ষতিগস্থ রাস্তার তালিকা তৈরি করে উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। ঐ তালিকায় জগাতলার রাস্তাটিও আছে। প্রকল্পের বরাদ্দ আসলেই অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তাটির সংষ্কার ও গাইড ওয়াল নির্মাণ করা হবে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন