বাংলা চলচিত্রের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা কবরী চলে গেলেন না ফেরার দেশে

স্বতঃকণ্ঠ বিনোদন ডেস্কঃ শুক্রবার ১৬ এপ্রিল দিবাগত রাত ১২টা ২০মিনিটে রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে সারাহ বেগম কবরী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

কবরীর ছেলে শাকের চিশতী জনপ্রিয় চিত্রনায়িকার মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

সাবেক সংসদ সদস্য, একসময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা ও নির্মাতা সারাহ বেগম কবরী প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেছেন।

গত সোমবার ৫ এপ্রিল করোনা রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ আসার পরপরই রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল জনপ্রিয় এই চিত্রনায়িকাকে।

পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে বৃহস্পতিবার ৮ এপ্রিল শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয় তাকে।

আইসিইউতে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে কবরীর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল ছিল, বৃহস্পতিবার হঠাৎ তার অবস্থার অবনতি ঘটলে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। এবং আজ শুক্রবার ১৬ এপ্রিল দিবাগত রাত ১২টা ২০মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

৭০ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী দীর্ঘদিন ধরে কিডনির জটিলতায় ভুগছিলেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর তার ফুসফুসের মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছিল চিকিৎসকরা। পাশাপাশি তার শারীরিক দুর্বলতাও ছিল।

১৯৫০ সালের ১৯ জুলাই চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে জন্মগ্রহণ করেন কবরী। তার শৈশব ও কৈশোর কেটেছে চট্টগ্রামের ফিরিঙ্গি বাজারে।

১৯৬৪ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে নির্মাতা সুভাষ দত্তের ‘সুতরাং’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে চিত্রজগতে যাত্রা শুরু করেন। দীর্ঘ তিন দশকের ক্যারিয়ারে তিন শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন কবরী।

অভিনেত্রী কবরী একাত্তরে কলকাতায় গিয়ে বাংলাদেশের পক্ষে জনমত সৃষ্টি করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। সেখানে বিভিন্ন সভা-সমিতি ও অনুষ্ঠানে বক্তৃতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন।

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসন থেকে তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন