বাঘায় অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্য উদ্ধারকারী অফিসারদের সনদ প্রদান

বাঘা(রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাঘায় অস্ত্র, গোলাবারুদ,মাদকদ্রব্য  ও নগদ অর্থ  উদ্ধারকারী অফিসারদের নগদ অর্থ  পুরস্কার  ও সনদ প্রদান করা হয়েছে।

গত ১৩ জুলাই পুলিশ সুপার রাজশাহীর মাধ্যমে ওই সকল অফিসারদের সাহসিকতা পূর্ণ ওই কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ নগদ অর্থ পুরস্কার ও  প্রশংসা সনদ প্রদান করা হয়।

জানা যায়, গত  জুলাই (০৭) স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা প্রভাষক মনোয়ার হোসেন মজনুর বাড়ীতে পুর্ব শত্রুতার জের অথাৎ পৌর নির্বাচনে তার বিপক্ষে নৌকা প্রতীকে ভোট করার কারনে হামলা চালায় মেয়র মুক্তার আলীসহ তার লোকজন।

এ সময় মজনু ও তার পরিবারের লোকজনকে মারপিট ও বাড়ি ভাংচুর করা হয়। এ ঘটনায় প্রভাষক মজনু বাদি হয়ে ওই দিন দিবাগত  রাত ০৯ টার দিকে  বাঘা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওই রাতেই জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) সহ চারঘাট সার্কেল অফিসার, বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ, এসআই প্রজ্ঞাময় এবং ডিবি পুলিশের একটি  দল অভিযান পরিচালনা করেন।

এসময় তার  বাড়িতে কয়েক ঘন্টা ধরে তল্লাশি করে-৭.৬৫ অটোমেটিক ১ টি বিদেশি  পিস্তল,৭.৬৫ পিস্তলের ৪টি মেগাজিন,৭.৬৫ পিস্তলের ১৭ রাউন্ড তাজা গুলি,৭.৬৫ পিস্তলের ০৪ টি গুলির খোসা,

ওয়ান শুটার ১ টি, দেশী তৈরী বন্দুক ১ টি,এয়ার রাইফেল ১টি, শট গানের ২৬ রাৎন্ড গুলি,১০ গ্রাম গাঁজা,৭ পুরিশা হেরোইন ২০ পিচ ইয়াবা,১৮ লক্ষ টাকার স্বাক্ষর করা চেক ও নগদ ৯৪ লক্ষ ৯৮ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মেয়র মুক্তার আলী পালিয়ে যায় এসময় তার  বাড়িতে কয়েক ঘন্টা ধরে তল্লাশি করে-৭.৬৫ অটোমেটিক ১ টি বিদেশি  পিস্তল,৭.৬৫ পিস্তলের ৪টি মেগাজিন,

৭.৬৫ পিস্তলের ১৭ রাউন্ড তাজা গুলি,৭.৬৫ পিস্তলের ০৪ টি গুলির খোসা, ওয়ান শুটার ১ টি, দেশী তৈরী বন্দুক ১ টি,এয়ার রাইফেল ১টি, শট গানের ২৬ রাৎন্ড গুলি,১০ গ্রাম গাঁজা,৭ পুরিশা হেরোইন ২০ পিচ ইয়াবা,

১৮ লক্ষ টাকার স্বাক্ষরিত ব্যাংক চেক। নগদ ৯৪ লক্ষ ৯৮ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মেয়র মুক্তার আলী পালিয়ে যায়।

তবে তার স্ত্রী জেসমিন আকতার(৪০) তার ২ ভাতিজা,নবাবের ছেলে হাসান (২৫) ও সামিরুলের ছেলে  শান্ত(২৩) দ্বয়কে আটক করে পুলিশ। তখন থেকেই মেয়র মুক্তার আলী পলাতক ছিলেন।

পরে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার একটি  দল  ০৯,জুলাই  পাবনা জেলার  ঈশ্বরর্দী উপজেলার পাকশি এলাকায়  অভিযান চালিয়ে ভোর ০৫ টার দিকে তার এক নিকটাত্মীয়র বড়ী হতে আরেক সহযোগীসহ মেয়র মুক্তারকে গ্রেফতার করা হয়।

গত ১৩ জুলাই পুলিশ সুপার রাজশাহীর মাধ্যমে ওই সকল অফিসারদের সাহসিকতা পূর্ণ ওই কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ নগদ অর্থ পুরস্কার ও  প্রশংসা সনদ প্রদান করা হয়।

আরও পরুনঃ পাবনার চাটমোহরে গ্রামবাসীর উদ্যোগে নির্মিত হচ্ছে বাঁশের সেতু

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন