যশোরের শার্শায় মেয়েকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে বাবা আটক

শার্শা (যশোর) প্রতিনিধিঃ যশোরের শার্শা উপজেলার পাড়িয়ারঘোপ গ্রামে নিজ পিতার হাতে ৯ বছরের কন্যা শিশুকে ধর্ষন চেষ্টার অভি্যোগ পাওয়া গেছে।

নির্যাতিত শিশুটি বর্তমানে যশোর সদর হাসপাতালে ভর্তি আছে বলে নিশ্চিত করেছেন নিজামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ।

ধর্ষন চেষ্টায় অভিযুক্ত পিতা মফিজুর রহমান যশোরের শার্শা উপজেলার পাড়িয়ারঘোপ গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে।

তার স্ত্রী বাড়িতে না থাকায় নিজ বাড়িতে তার মেয়েকে একা পেয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করছিল বলে জানা যায়। এ সময় শিশুটির আত্মচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে।

নিজামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ জানান, আমি ইউপি সদস্য খোরশেদের মাধ্যমে জানতে পারি মফিজুর তার ৯ বছরের কন্যা শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টা করেছে।এ সংবাদ জানার পর পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে তাকে আটক করে এবং গোরপাড়া ফাঁড়িতে আনার পর সে পুলিশের কাছে তার অপরাধের কথা স্বীকার করেছে।

এ বিষয়ে শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম খান জানান, শিশুটির নানা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। পরে পুলিশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে মফিজুরকে আটক করেছে।

ধর্ষন চেষ্টায় অভিযুক্ত পিতা মফিজুর রহমানকে যশোর বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে জানান ওসি বদরুল আলম খান।

আরও পড়ুনঃ পাবনার সাঁথিয়ায় স্বামীর পরকীয়ার জের ধরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন