রবীন্দ্র কাচারি বাড়িতে পালিত হচ্ছে না রবিঠাকুরের ১৬০ তম জন্মজয়ন্তী

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ ‘ভালোবেসে সখী, নিভৃতে যতনে আমার নামটি লিখো তোমার মনেরও মন্দিরে’ শাহজাদপুরের কাচারি বাড়িতে বসে তিনি এই কবিতাটি লিখেছিলেন।

আজ ২৫ শে বৈশাখ ১৪২৮ সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের নিরবে নিভৃতে কেটে যাচ্ছে বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরে ১৬০ তম জন্মজয়ন্তী।

করোনা প্রাদূর্ভাবের কারণে গতবছর শাহজাদপুরের রবীন্দ্রনাথ এর কাচারি বাড়িতে কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে কোন অনুষ্ঠান পালিত হয়নি।কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে কাচারি বাড়ির উৎসবমুখর প্রাঙ্গণ এবছরও পড়ে হইল উৎসবহীন হয়ে।

শুক্রবার ৭ মে সরজমিন ঘুরে দেখা গেছে, রবীন্দ্রনাথ এর কাচারি বাড়ি প্রাঙ্গণ সাদা মাঠা ভাবেই আছে। করোনার প্রভাবের কারণে গত বছর ১৫৯ তম জন্মজয়ন্তী পালন করা হয়নি এবং এবছরও ২৫শে বৈশাখ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬০ তম জন্ম জয়ন্তীতেও কোন অনুষ্ঠান পালিত হচ্ছে না।

বিশিষ্ট কবি ও সাংবাদিক কবির আজমল বিপুল জানান, প্রতি বছর রবীন্দ্র কাচারি বাড়ি উৎসবে মুখরিত হয়ে ওঠে। এই করোনাকালে রবীন্দ্র কাচারি বাড়ি প্রাঙ্গণ যেন উৎসবহীনতায় মৃতপ্রায়। রবীন্দ্র জয়ন্তী উপলক্ষে শুধু সিরাজগঞ্জের সাংস্কৃতিক কর্মী নয়, সারাদেশের সাংস্কৃতিক কর্মী ও রবীন্দ্র ভক্তরাও বঞ্চিত হলো রবীন্দ্র উৎসবের ক্লান্তিহীন আনন্দ থেকে।

শাহজাদপুর উপজেলার সাবেক আইনজীবি সমিতির সভাপতি ও বাসদ সভাপতি এ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন জানান, জাতীয়ভাবে বরাবর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী পালন করা হয়ে আসছে। কিন্তু এবারই তার ব্যতিক্রম হলো। করোনার ভয়াবহতার কারনে লকডাউনকে কেন্দ্র করে সীমিত আকারে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ভার্চুয়ালভাবে হলেও শাহজাদপুরে বিশ্বকবির জন্মজয়ন্তী পালন করা উচিত ছিল। যেহেতু দেশে সকল কর্মসূচি ভার্চুয়ালভাবে পালন করা হচ্ছে।

শাহজাদপুর শিল্পকলা একাডেমির এডহক সদস্য বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত শিল্পি কাজী শওকত হোসেন জানান, কবিগুরুর স্মৃতি ধন্য শাহজাদপুরে করোনার কারণে কোন অনুষ্ঠান না হওয়ায় আমরা মর্মাহত হয়েছি। যেহেতু এটা বিশ্বব্যাপী দুর্যোগ তাই আমরা ঘরোয়াভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জন্মজয়ন্তী পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোঃ শামসুজ্জোহা জানান, প্রতি বছর ২৫, ২৬ ও ২৭ শে বৈশাখ ৩ দিন ব্যাপি কবিগুর রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী নানা আয়োজনে পালন করা হয়। কিন্তু এ বছর করোনা প্রাদুর্ভাবের কারনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন অনুষ্ঠানমালার চিঠি না আসায় ২৫শে বৈশাখ কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী পালন করা সম্ভব হচ্ছে না।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন