রাজশাহীর পুঠিয়ায় মাইক্রোবাস ও কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ ও আহত ১০

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর পুঠিয়ায় মাইক্রোবাস ও কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক মাইক্রোবাসের চালক নিহত এবং মাইক্রোবাস ও কারে থাকা ১০ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে।

বুধবার ১২ মে ভোর সাড়ে ৪ টার সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একটি যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের পুঠিয়া উপজেলার ঝলমলিয়া মুরাদের পাম্পের কাছে আসা মাত্রই বিপরীতগামী একটি কারের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় মাইক্রোবাস ও কারটি মহাসড়কের পাশে উল্টে যায়।

নিহত মাইক্রোবাসের চালক যশোর জেলার মাগুরা এলাকার রেজাউল ইসলামের ছেলে রাজু (৪৫)।

আহতরা হলেন, উপজেলার বানেশ্বর এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে রানা (৩৫), রাজশাহী মহানগরের ইসলামের স্ত্রী নাসিমা বেগম (৩৫), নাটোর বাগাতিপাড়া উপজেলার কলিম উদ্দিনের ছেলে রুবেল (৩০), মোহনপুর উপজেলার আঃ দুলালের ছেলে লতিফুর রহমান (১৮), তানোর উপজেলার মজিবুর রহমানের ছেলে রাসেল (২৫) ও বাগমারা উপজেলার আব্দুল গফুরের স্ত্রী কবিজান (৫০)। বাকীদের পরিচয় জানা যায়নি।

খবর পেয়ে পুঠিয়া ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

পরে আহত নাসিমা বেগম ছাড়া সকলকেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হাসপাতালে ভর্তির সময় মাইক্রোবাসের চালক রাজু মারা যায়।

পবা হাইওয়ে পুলিশ ফাড়ি ইনচার্জ লুৎফর রহমান জানান, দুর্ঘটনার কবল থেকে মাইক্রোবাস ও কারটি আটক করা হয়েছে। এবং এ বিষয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান বাচ্চুর হুংকার

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন