সিঙ্গাপুরে মহান স্বাধীনতা দিবসের দিবসের ৪৯-তম বার্ষিকী পালিত

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ বাংলাদেশ হাইকমিশন, সিঙ্গাপুর এর উদ্যোগে ২৬ মার্চ ২০২০ তারিখে হাইকমিশন প্রাঙ্গনে যথাযথ মর্যাদা ও আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে মহান স্বাধীনতা দিবসের ৪৯-তম বার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে।

নোভেল করোনা ভাইরাস সংক্রমণ মারাত্মক আকার ধারণ করায় স্বাগতিক সরকারের নির্দেশনা মেনে অত্যাধিক জনসমাগম পরিহার করে সংক্ষিপ্ত পরিসরে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

সকালে হাইকমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান কর্তৃক মিশন কর্মকর্তাবৃন্দ ও প্রবাসী বাংলাদেশীদের উপস্থিতিতে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচীর সূচনা হয়। এরপর মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মোৎসর্গকারী বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় ও মুক্তিযুদ্ধে নিহত শহীদদের আত্মার মাগফেরাত ও দেশের সুখ, শান্তি, কল্যাণ কামনায় বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।

পরে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পড়ে শোনোনো হয়।

এরপর হাইকমিশন মিলনায়তনে দিবসটির তাৎপর্য্য ও গুরুত্ব তুলে ধরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। হাই কমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান তাঁর বক্তৃতায় মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা এবং হানাদার বাহিনীর হাতে নির্যাতিত মা-বোনদের আত্মত্যাগ এবং অবদান কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন। আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধের পটভ’মি উল্লেখ করে হাই কমিশনার বাঙালী জাতির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অসামান্য অবদান শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।

তিনি নয় মাসব্যাপী রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে যে লাল সবুজের পতাকা অর্জিত হয়েছে, তার মর্যাদা চিরকাল সমুন্নত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ও প্রবাসী বাংলাদেশীদেরকে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে দেশমাতৃকার উন্নয়নে নিজ নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখার আহবান জানান।

সিঙ্গাপুর প্রবাসী বাংলাদেশী, বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃšদ, হাই কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং তাদের পরিবারের সদস্যগণ অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে হাইকমিশন এর উদ্যোগে সিঙ্গাপুরের অন্যতম জনপ্রিয় দৈনিক “ঞযব ইঁংরহবংং ঞরসবং” দুই পৃষ্ঠাব্যাপী রঙিন ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হয়।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন