সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলায় মুসুর প্রদর্শনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে কৃষক পর্যায়ে উন্নতমানের ডাল, তেল ও মসলা, বীজ উৎপাদন, সংরক্ষণ ও বিতরণ প্রকল্পের এর আওতায় ১লা মার্চ ২০২১ বাস্তবায়িত মুসুর প্রদর্শনীর এক মাঠ দিবস আমিনুল ইসলামের বাড়ী সাউদটোলা গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিএম আতিকুর রহমান নান্নু এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (উদ্যান) কৃষিবিদ মোহাম্মদ আরিফুর রহমান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কাজিপুর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. রেজাউল করিম, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ ফয়সাল আহম্মেদ, উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষন কর্মকর্তা দিলীপ কুমার চক্রবর্তী ।

উক্ত মাঠ দিবসে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো.রেজাউল করিম সুধীজনদের শুভেচ্ছা জানিয়ে স্বাগত বক্তব্যে বলেন, মুসুর ডাল ফসল অন্য ফসলের তুলনায় খরচ কম লাভ বেশী। মুসুর ডালের চাষাবাদ, রোগ-বালাই, পরিচর্যা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

প্রধান অতিথি সিরাজগঞ্জ জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (উদ্যান) কৃষিবিদ মোহাম্মদ আরিফুর রহমান বলেন, কৃষিতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফসল উৎপাদন বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে যার ফলে খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হয়েছি কিন্তু ডাল, তেল ও মসলা এখনো আমদানী করতে হচ্ছে।

আগামীতে ডাল, তেল মসলা ফসলের নির্ভরতা কমাতে এবং দেশের চাহিদা পূরনের জন্য কৃষক সমাজ ও কৃষি বিভাগ কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি আরোও বলেন ডালকে গরীবের মাংস বলা হয় ডালে আছে প্রচুর পরিমানে আমিষসহ অন্যান্য পুষ্টিগুণ। ডাল খেলে কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। দানা জাতীয় ফসলের পাশাপাশি ডাল জাতীয় ফসল উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য তিনি উপস্থিত কৃষক/কৃষাণীদের অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানের আগে প্রদর্শনকারী চাষী মো.সোলাইমান হোসেন এর মুসুর প্রদর্শনী প্লটে আগত চাষীদের দেখানো হয়। আগত চাষীদের সকলেই মুসুর ডাল ফসল আবাদের সম্মতি জ্ঞাপন করেন এবং মৌসুমের শুরুতেই বীজ সরবরাহের অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানে প্রায় শতাধিক কৃষক/কৃষাণী উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষন কর্মকর্তা দিলীপ কুমার চক্রবর্তী।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন