সিরাজগঞ্জের তারাশে কোটি টাকা মূল্যের প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক মূর্তি চোরাকারবারি গ্রেফতার

স্বতঃকণ্ঠ ডেস্কঃ সিরাজগঞ্জের তারাশে র‌্যাবের অভিযানে কয়েক কোটি টাকা মূল্যের প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক মূর্তি সহ ৩ জন চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২।

গ্রেফতারকৃত চোরাকারবারিরা হলো, সিরাজগঞ্জ জেলার তারাশ থানার বৈদ্যনাথপুর গ্রামের মোঃ মফিজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ সাদেক হোসেন (৫০), পেঙ্গুয়ারী গ্রামের মোঃ নিজাম উদ্দিনের ছেলে মোঃ গোলাম সাকলাইন (৪০) ও কুসুমদী গ্রামের শ্রী অন্তিম সরকারের ছেলে শ্রী রাম সরকার (৩৮)।

র‌্যাব-১২, হাটিকুমরুল, সলঙ্গা, সিরাজগঞ্জ এর মিডিয়া অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানান।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিটিতে বলা হয়, বুধবার ৭ এপ্রিল বিকাল ৩ টা ৫০ মিনিটের সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১২ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মো মশিউর রহমান, পিএসসি এর নেতৃত্বে স্পেশাল কোম্পানীর একটি চৌকষ আভিযানিক দল সিরাজগঞ্জ জেলার তারাশ থানার বৈদ্যনাথপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে ৩ জন প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক মুর্তি চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করা হয়। চোরাকারবারিরা অবৈধভাবে একটি কষ্ঠিপাথর সদৃশ বিষ্ণুমূর্তি ক্রয়-বিক্রয়ের চেষ্টা করছিল।

এছাড়াও তাহাদের নিকট হতে ২ টি মোবাইল, ২টি ব্যাংক চেক ও বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত ১টি স্ট্যাম্প উদ্ধার করা হয়।

প্রাচীন প্রত্নতাত্তিক এই মূর্তিটি একটি কালো রংয়ের কষ্ঠিপাথর সদৃশ বিষ্ণুমূর্তি। মূর্তিটির ওজন প্রায় ৩৩ কেজি।

গ্রেফতারকৃত চোরাকারবারিদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইন ১৯৭৪ এর ২৫-খ/২৫-ঘ ধারায় তাড়াশ থানায় মামলা করা হয়েছে। এবং উদ্ধারকৃত আলামতসহ তাদেরকে সিরাজগঞ্জের তাড়াশ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‍্যাব জানায়, বাংলা গঠনে র‌্যাব-১২ এ ধরণের প্রতারক ও চোরাকারবারী বিরোধী অভিযান অব্যহত রাখতে বদ্ধপরিকর।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন