সিরাজগঞ্জের তাড়াশে অপহরণ ও জোরপূর্বক বাল্যবিবাহের অপরাধে গ্রেফতার ২

ডেস্ক নিউজঃ সিরাজগঞ্জের তাড়াশে অপহরণ ও জোরপূর্বক বাল্যবিবাহ; অতঃপর র‌্যাবের হাতে অপহরণ চক্রের ০২ সদস্য গ্রেফতার।

গ্রেফতারকৃত আসামী হলো, উভয় সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ থানার ঈশ্বরপুর গ্রামের মোঃ কাফি ফকিরের ছেলে মোঃ জনি (২২) ও  মৃত-নবীর উদ্দীনের ছেলে মোঃ কাফি ফকির।

ঘটনাঃ গত ১২ মে ২০২১ তারিখে দিবাগত রাত ১:৩০ ঘটিকায় সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ থানার কুন্দইল গ্রামের মোঃ জাহাংগীর আলমের মেয়ে মোছাঃ জোতি খাতুন (১২) প্রকৃতিক ডাকে নিজ বাড়ির বাহিরের টয়লেটে যাবার সময়, আসামী মোঃ জনি (২২) পূর্বপরিকল্পিত ভাবে কয়েক জন বন্ধুর সহয়তায় মোসাঃ জোতি খাতুন (১২) কে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে মেয়েটির পরিবার অনেক খোজা খুজির পর ১৬/০৫/২০২১ তারিখে তাড়াশ থানায় সাধারণ ডায়েরী করে এবং র‌্যাব-১২ এর কাছে অপহরণের অভিযোগ করে, উক্ত ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে।

অপহরণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১২ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মোঃ মশিউর রহমান, পিএসসি এবং এ্যাডজুটেন্ট এবং অপ্স অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান নেতৃত্বে র‌্যাব-১২ এর বিভিন্ন গোয়েন্দা তথ্য এবং আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে ১৭/০৫/২০২১ তারিখ রাতের প্রথম প্রহর ০১:৩০ ঘটিকায় আসামীর নিজ বাড়ী থেকে ভিকটিম (মোসাঃ জোতি খাতুন (১২) কে উদ্ধার সহ অপহরণ চক্রের ০২ জন সদস্যকে আটক করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে এবং জন্ম তারিখ পরির্বতন করে অসাধু উপায়ে কাজি (মোঃ আতিক, সাং- মসিন্দা মাঝপাড়া, থানা- গুরুদাসপুর, জেলা- নাটোর) এর সহযোগীতায় মেয়েটিকে বিবাহ করে। উল্লেখ্য যে মেয়েটির বয়স জন্ম সনদ অনুযায়ী-০৫/০৬/২০০৯ তারিখ অপরদিকে বিবাহের হলফনামা অনুযায়ী- ০৫/০৬/২০০২ তারিখ যাহা একটি বাল্য বিবাহ।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় ২০ কেজি গাঁজাসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন