সিলেটের মৌলভীবাজারে অস্ত্রসহ “আনসার-আল-ইসলাম” এর ১ জঙ্গি আটক

সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেটের মৌলভীবাজারে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন “আনসার-আল-ইসলাম” এর এক সক্রিয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৯। এসময় অস্ত্র, জিহাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়।

সাম্প্রতিক সময়ে র‌্যাব-৯ এর আভিযানিক ও গোয়েন্দা কার্যক্রমের মাধ্যমে পরিলক্ষিত হয় যে, নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন “আনসার-আল-ইসলাম”এর লিফলেট বিতরণ সহ অন্যান্য কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

তারা সাধারণ মানুষের সাথে মিশে গিয়ে দেশের সার্বভৌমত্বের পরিপন্থি উগ্রপন্থী মতামত লিফলেট আকারে প্রকাশ এবং তা বিতরণ করা সহ তাদের জঙ্গীবাদের মতাদর্শ গোপনে প্রচার করে আসছিল।

তারা ধর্মীয় অপব্যাখ্যার মাধ্যমে যুব সমাজকে জঙ্গীবাদের দিকে অগ্রসর করানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।

এছাড়াও তারা নিজেদের সংগঠনকে আর্থিক ভাবে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে নিয়মিত চাঁদা সংগ্রহ করে যাচ্ছে।

এই সকল ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার লক্ষ্যে র‌্যাব-৯ নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৯ সোমবার (১ মার্চ) রাত ১‌২টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ থানাধীন লাউয়াছড়া পার্কের টিলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এসময় একটি বিদেশী রিভলভার, বিপুল সংখ্যক আইন শৃংখলা বিরোধী লিফলেট ও জিহাদী বই উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত জঙ্গী মো. কামরুজ্জামান লিটন (৩৬) ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপা থানার সাতবিলাকুল ছাড়ার মো. উন্মত আলী মন্ডলের পুত্র। অভিযানের সময় অন্যান্য জঙ্গী সদস্যরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

র‌্যাব জানায়, জঙ্গীরা দেশের বর্তমান শাসন ব্যবস্থার পরিবর্তন ঘটিয়ে খিলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন “আনসার-আল-ইসলাম” শক্তিশালী করার লক্ষ্যে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজরদারীর বাহিরে থেকে নাশকতামূলক পরিকল্পনা করার জন্য সমবেত হয়েছে এবং সে বিভিন্ন জেলা থেকে অর্থ সংগ্রহ ও কর্মী সংগ্রহের কাজ করে থাকে।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিঞ্জাসাবাদে আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ ও চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গিয়েছে। অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যহত রয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন