স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ভারতের দেওয়া উপহারের ১০৯টি এ্যাম্বুলেন্স আসতে শুরু করেছে

বেনাপোল প্রতিনিধি: বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশকে ১০৯ টি এ্যাম্বুলেন্স উপহার দিচ্ছে ভারত সরকার।

এই উপহারের প্রথম একটি অ্যাম্বুলেন্স রোববার রাতে বেনাপোল স্থলবন্দরে প্রবেশ করেছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের আগে ও পরে পর্যায়ক্রমে বাকি এ্যাম্বুলেন্সগুলি এসে পৌঁছাবে।

ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে এ উপহার নরেন্দ্র মোদী হস্তান্তর করবেন বলে জানা গেছে।

অ্যাম্বুলেন্সটির বাংলাদেশি আমদানিকারক দি ভারতীয় হাইকমিশনার। রফতানি কারক ভারতের ইসএমএল ইসুজি। বেনাপোল বন্দর থেকে পণ্য চালানটি ছাড় করাবেন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট জেড আর করপোরেশন।

প্রতিটা অ্যাম্বুন্সের ভারতীয় মুল্য ১৭ লাখ ১৭ হাজার ২০০ রুপি। যা বাংলাদেশি টাকায় ২০ লাখ ২০ হাজার ২০০ টাকা পড়ছে। তবে এ এ্যামবুলেন্সগুলো শুল্ক মুক্ত সুবিধায় বন্দর থেকে ছাড় হবে বলে জানা গেছে।

পণ্য ছাড় কারক প্রতিষ্ঠান উত্তরা মোটরসের কর্মকর্তা জাকারিয়া ইমতিয়াজ জানান, অ্যাম্বুলেন্সটি বেনাপোল বন্দরের শেডে রাখা হয়েছে। বন্দর ও কাস্টমসের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ঢাকায় নেয়া হবে। বাকি ১০৮টি অ্যাম্বুলেন্সও পর্যাক্রমে বাংলাদেশে আসবে।

তিনি আরও জানান, উপহার হিসেবে আসা প্রথম অ্যাম্বুলেন্সটিতে ভেন্টিলেশন সুবিধা রয়েছে। অর্থাৎ কার্ডিয়াক রোগী বহনের সুযোগ থাকছে এতে।

বেনাপোল কাস্টম হাউজের কমিশনার আজিজুর রহমান জানান, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার হিসেবে আনা অ্যাম্বুলেন্স গুলি বেনাপোলে এসে পৌঁছালে সেগুলি অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে দ্রুত ছাড় করানোর ব্যবস্থা করা হবে।

বেনাপোল বন্দরের সহকারী পরিচালক (ট্রাফিক) আতিকুল ইসলাম জানান, এ্যাম্বুলেন্স প্রবেশের বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ বন্দর কর্তৃপক্ষকে জানাননি।

তবে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট তাদের মৌখিক ভাবে বলেছে একটি এ্যাম্বুলেন্স ঢুকেছে যেটি ভারতের উপহার। সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে চিঠি পেলে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থায় রাখা হবে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন